পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ২০ চীনা নাগরিক বিশেষ পর্যবেক্ষণে

  • আপডেট টাইম : ফেব্রুয়ারি ০৫ ২০২০, ১৮:৩৪
  • 63 বার পঠিত
পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ২০ চীনা নাগরিক বিশেষ পর্যবেক্ষণে

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২০ জন চীনা নাগরিককে বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। সম্প্রতি তারা চীন থেকে বাংলাদেশে এসেছেন।

পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অভ্যন্তরে তাদের আলাদা সতর্ক অবস্থানে রাখা হয়েছে। মোট ১৪দিন এদের এভাবে বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। এরপরে সবাই কাজে যোগদান করবেন।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আছে কি না তা নিশ্চিত হতে এমন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তবে এসকল নাগরিকরা সবাই সুস্থ এবং স্বাভাবিক রয়েছেন।

কলাপাড়া স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. চিন্ময় হাওলাদারসহ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিশেষ মেডিকেল টিম তাদের চেকআপ করছেন।

ডা. চিন্ময় হাওলাদার জানান, সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেয়া ২০ চীনা নাগরিকের ১৭ জন ৩০ জানুয়ারি, দুইজন ২৩ জানুয়ারি এবং একজন ২৬ জানুয়ারি বাংলাদেশে ফিরেছেন। এখন পর্যন্ত এসকল চীনা নাগরিকদের মধ্য করোনাভাইরাসের কোনো ধরনের লক্ষণ পরিলক্ষিত হয়নি বলে তিনি নিশ্চিত করেছে এবং সকলে তারা সবাই সুস্থ রয়েছেন। শঙ্কার কিছুই নেই।

এদিকে পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী রেজওয়ান কবির জানান, এখন পর্যন্ত এখানকার চীনা কর্মকর্তা বা শ্রমিকদের মধ্যে কোনো ধরনের আতঙ্ক বিরাজ করছে না। তবে সতর্কতার জন্য তাদেরকে আলাদাভাবে রাখা হয়েছে। প্রতিদিন তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

হালিমা খাতুন স্কুলের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি, বরিশাল







ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
নিষেধাজ্ঞায় পড়তে যাচ্ছে বার্সা-রিয়ালসহ ১২টি লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সুপারিশউজিরপুরে সাতলার পটিবাড়ি ৯০০ বিঘা জমিতে মাৎস্দুমকিতে ডায়রিয়ায় শিশুসহ ৪ জনের মৃত্যুঅনলাইন প্রেসক্লাব বরিশাল’র কমিটি ঘোষণা, সভাপ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১০২ জনের মৃত্যুবরিশালে বসছে দুই শতাধিক সিসি ক্যামেরামাওলানা মামুনুল হক গ্রেপ্তারবাউফলে স্বামীর চোখ তুলে নিলো স্ত্রী ও তার প্রপুরো পরিবারসহ করোনায় আক্রান্ত প্রখ্যাত চিকিলকডাউনে কাজ না পেয়ে রাঙাবালীতে দিনমজুরের গলাজানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে সমাহিত হবেন কবরীসুদের তিনগুণ টাকা-জমি দিয়েও প্রাণ গেল স্ত্রীটিকার তৃতীয় ডোজও নেয়া লাগতে পারেএকদিনে ১০১ জনের মৃত্যুতে নয়া রেকর্ড
%d bloggers like this: