পটুয়াখালীতে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ আহত-৩

  • আপডেট টাইম : এপ্রিল ২৮ ২০২০, ২০:৪৬
  • 148 বার পঠিত
পটুয়াখালীতে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ আহত-৩

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীতে জমা জমি বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ তিনজন আহত। এ ঘটনাটি ঘটেছে পটুয়াখালী সদর উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের পশ্চিম বদপুর ঠোডার খোলা এলাকায়। এ ঘটনায় সদর থানায় ফারুক হাওলাদার (৫০), রস্তুম হাওলাদার (৬০), আঃ বারেক হাওলাদার(৫৫), বাদশা হাওলাদার(২৫), রফেজ হাওলাদার(৪৫),আঃ রাজ্জাক হাওলাদার(৫৫), জুয়েল হাওলাদার (৩৫), বশার হাওলাদার(২৮), মামুন হাওলাদার(৩০), মাছুম হাওলাদার(২৫), মুছা হাওলাদার(২২), ইলিয়াছ (২০), তুহিণ হাওলাদার(২৫) রাসেল(৩০), জাকির (৩৫) ও শাহজানাজ (৪৬) কে আসামী করে সদর থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা নং-২৯।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরনে ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ইন্টারনেট ব্যবসায়ী মোঃ ছালাউদ্দিন ঝুলনের ভগ্নিপতি আনোয়ার হোসেন খান দীর্ঘদিন পূর্বে বিরোধী পক্ষ ফারুক
হাওলাদারের বাড়ির পাশে ওপেন্দ্র মোহনের কাছ থেকে ১২.২৫ একর জমি কবলামুলে ভোগ দখল করে আসছে। এ জমি ফারুক হাওলাদার ও রস্তুম
হাওলাদার গংদের বাড়ির পাশে থাকার সুবাদে ফসল আবাদে বিভিন্নভাবে বাধা সৃষ্টি করে ফসলের ক্ষতি সাধন করে জমি দখল করার চেষ্টা করে। এতে
বাধা নিষেধ করলে ফারুক গংরা বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও ভয়ভীতি দেখায়।

এ কবলাকৃত জমি নিয়ে আনোয়ার হোসেন স্থানীয়দের নিয়ে ফারুক গংদের সাথে একাধিকবার সালিশ মিমাংসার চেষ্টা করে। কিন্তু ভূমিদস্যু ফারুক ও রুস্তুম গংয়েরা সালিশ বিচার মানে না। আনোয়ার
হোসেন প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও কৃষকদিয়ে চলতি মৌসুমে ওই জমিতে তিল ও মুগ ডাল চাষ করে। ঘটনারদিন ২৬ এপ্রিল রবিবার আনুমানিক সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ইন্টারনেট ব্যবসায়ী ঝুলনসহ কয়েকজন কাজের লোক নিয়ে উক্ত জমিতে চাষকৃত মুগডাল ও তিল তুলে আনতে যায়। এ সময় পূর্ব বিরোধের জের ধরেপূর্ব পরিকল্পিতভাবে উল্লেখিত ফারুক হাওলাদার, রস্তুম হাওলাদার, আঃ বারেক হাওলাদার, বাদশা হাওলাদার, রফেজ হাওলাদার, আঃ রাজ্জাক হাওলাদার, জুয়েল হাওলাদার, বশার হাওলাদার, মামুন হাওলাদার, মাছুম হাওলাদার, মুছা
হাওলাদারসহ ২০-২৫ জন লোক ধাড়ালো রামদা, দাওসহ দেশী তৈরী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এ সময় ফারুক হাওলাদার ও তার ছেলে বাদশা হাওলাদার তার হাতে থাকা রাম দা দিয়ে এবং অন্যান্য সন্ত্রাসীরা লাঠি সোটা দিয়ে খুনের উদ্দেশ্যে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ছালাউদ্দিন ঝুলনের মাথায় ও
শরীরে এলাপাথারী কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় ঝুলনকে বাচাতে তার সাথে থাকার নাসির তালুকদার ও বেল্লালসহ কয়েক এগিয়ে গেলে দুর্বৃত্তরা তাদেরকেও কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। এ সময় ফারুক হাওলাদার ঘুরতর আহত ঝুলনের ট্রাউজারের পকেটে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। দুর্বৃত্তরা যাবার সময় ক্ষেতের আবাদকৃত তিল ও মুগ ডালের ব্যাপক ক্ষতি করে ভয়ভীতি দেখায়ে চল যায়।

স্থানীয়রা গুরুতর আহত ঝুলন, নাসির ও বেল্লালকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিস্ট পটুয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তারা চিকিৎসারত
আছে। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ইন্টারনেট ব্যবসায়ী মোঃ ছালাউদ্দিন ঝুলন বাদী হয়ে ২৬ এপ্রিল সদর থানায় ফারুক হাওলাদারসহ ১৬
জনকে চিহ্নিত করে একটি মামলা দায়ের করেন। এ সন্ত্রাসী ঘটনায় এলাকায় থম থমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

হালিমা খাতুন স্কুলের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি, বরিশাল







ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
কোটি টাকার ইউএনও ভবন হস্তান্তরের আগেই সংস্কাভোলায় ৪০ মণ জাটকা জব্দ, ৭৮ জেলে আটকওয়ানডের সেরা ১০ বোলারের তালিকায় সাকিব-মিরাজএই মডেলের এককাপ প্রসাবের মূল্য ৬ হাজার টাকামাসুদ রানা সিরিজের স্রষ্টা কাজী আনোয়ার হোসেনসেফুদার বিচার শুরুসার্বভৌমত্বে আঘাত এলে বসে থাকবে না বাংলাদেশ : বোনকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বড়ভাইকে কুপ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে বিসিসির পাল্টা আইনি বযুবদলের কমিটি বাতিলের দাবিতে উজিরপুরে নেতা-কশনাক্ত ছাড়ালো ৮ হাজার, মৃত্যু ১০মালয়েশিয়ার মেয়েদের ৮ উইকেটে হারাল বাংলাদেশসংক্রমণ বাড়লে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ: শিক্ষাকলাপাড়ায় ঐতিহ্যবাহী মহিষের লড়াইবরিশালে অটোরিকশা চালককে হত্যায় একজনের মৃত্য
%d bloggers like this: