ভাতা প্রত্যাশী গেজেটভুক্ত ৪২ মুক্তিযোদ্ধার তালিকা নিয়ে জটিলতা

  • আপডেট টাইম : ডিসেম্বর ৩০ ২০১৯, ০৯:০০
  • 221 বার পঠিত
ভাতা প্রত্যাশী গেজেটভুক্ত ৪২ মুক্তিযোদ্ধার তালিকা নিয়ে জটিলতা

বরিশালে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের তালিকা নিয়ে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। এসব মুক্তিযোদ্ধাদের নাম গেজেট আকারেও প্রকাশ করা হয়েছে। তবে শেষ মুহূর্তে গতকাল রোববার জেলা প্রশাসনের যাচাই-বাছাই সভায় তাদের নাম ঠিকানায় ভুলসহ বিভিন্ন বিষয়ে ত্রুটি-বিচ্যুতি ধরা পড়ে। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় ও মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি ত্রুটি-বিচ্যুতিতে থাকা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ৪২ জন মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের যে তালিকা হয়েছে তা স্থগিত রাখার সুপারিশ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও সমাজসেবা অধিদপ্তরের এক ক্লার্ককে শাস্তি প্রদানের বিষয়ে নির্দেশনা দেন সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক। যদিও জেলা প্রশাসক তালিকায় ত্রুটি-বিচ্যুতির তথ্য স্বীকার করেননি।
সভায় উপস্থিত জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসার সাজ্জাদ পারভেজ বলেন, বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের নাম গেজেট আকারে প্রকাশ হয়েছে। যাচাই-বাছাইয়ের সময় নাম-ঠিকানার বানান জনিত ভুল ধরা পড়ে। এ ঘটনায় রোববারের বৈঠকে জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান অসন্তোষ প্রকাশ করছেন। তাই পুনরায় তালিকার ত্রুটি সংশোধনের কাজ চলছে। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার কেএস. মহিউদ্দিন মানিক (বীরপ্রতিক) বলেন, রোববার যাচাই-বাছাই নিয়ে সভা ছিলো। আমি অসুস্থ থাকায় সভায় যেতে পারিনি। তবে শুনেছি মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের নামের তালিকায় ভূয়া নাম দেয়া হয়েছে। এ বিষয় নিয়ে একটু জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।
মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোকলেছুর রহমান বলেন, তালিকাভুক্ত ৪২ জন মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। তাদের নাম ও ঠিকানার বানানে ভুল ধরা পড়েছে। তারা নগরীসহ জেলার ১০টি উপজেলার বাসিন্দা। রোববারের বৈঠকে জেলা প্রশাসক তথ্যে কেন অসংগতি হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন। মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের তালিকা স্থগিত ও ত্রুটিতে জড়িত কর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
স্থগিত হওয়া তালিকা প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, এদের মধ্যে নতুন। আবার কেউ মৃত ব্যক্তির স্বজন হিসেবে ভাতা প্রাপ্তির আবেদন করেছেন। এমন ত্রুটি-বিচ্যুতির জন্য দায়ী কারা? এ প্রসঙ্গে মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোকলেছুর রহমান বলেন, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা বরাদ্দ কমিটি এই তালিকা করেছে। সে হিসেবে তিনিও ওই কমিটিতে আছেন। বরিশাল জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আল মামুন বলেন, তালিকায় নাম-ঠিকানার বানান ভুল ছিলো। তাই এ ঘটনার সাথে জড়িতদের শোকজ করার নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) তৌহিদুজ্জামান পাভেল জেলা প্রশাসনে আয়োজিত সভার কথা স্বীকার করলেও তিনি দাপ্তরিকভাবে মন্তব্য করতে রাজি নন। তবে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাসেল ইকবাল অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের বরাত দিয়ে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা প্রত্যাশীদের নামের তালিকায় যেসব নামের বিপরীতে ত্রুটি দেখা দিয়েছে তা যাচাই বাছাই চলছে। এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এটি তদন্তের বিষয়। জেলা প্রশাসক কর্তৃক সমাজসেবা অধিদপ্তরের ক্লার্ককে শাস্তির নির্দেশ এবং মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারকে ভৎর্সনা করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শাস্তির বিষয়টি কথার কথা ছিল। আর জেলা প্রশাসক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের কাছে এমন ঘটনার কারন জানতে চেয়েছে মাত্র।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক এস.এম. অজিয়র রহমান বলেন, ৪২ জন মুক্তিযোদ্ধার ভাতা প্রত্যাশীদের তালিকা নিয়ে জটিলতার বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে রোববার মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে সভা ছিলো। সেখানে এধরণের কোন আলোচনা হয়নি।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

হালিমা খাতুন স্কুলের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি, বরিশাল







ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
ভোলার দৌলতখানে বিনে পয়সায় রোগী দেখছেন ডাঃ রা১২ বছর ও তদূর্ধ্ব ছাত্র-ছাত্রীদের টিকার ব্যবসোহাগ হত্যা মামলা / দুই জনের ফাঁসি ঃ ৪ জনের যাবট্রাক-কাভার্ড ভ্যান শ্রমিকদের ৪৮ঘণ্টা কর্মবআবারো ভেঙে পরলো ব্রিজ ঃ বরিশালের সাথে ৩ রুটেরলেবুখা‌লি সেতু‌ প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন কর‌ববরিশালে নদীগর্ভে বিলীন হতে চলেছে জৈনপুরী বড় নিজের অফিসে গাড়ি কেনার টাকা স্বাস্থ্যসেবায় দখালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ছে ৬ মাসকুয়াকাটায় সমুদ্রে ১৫ জেলেসহ মাছধরা ট্রলার ডু৭ শতাংশে নামলো করোনায় শনাক্তের হারবরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে আগুন লাগার গুজব ছড়িবঙ্গোপসাগরে সামুদ্রিক সম্পদ জলজ স্তন্যপায়ী লঞ্চঘাট বানান ভুল নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে ক্ষোভনিখোঁজের দু’দিন পর মাঝির মরদেহ উদ্ধার
%d bloggers like this: