বরিশালের বঙ্গবন্ধু সড়ক এখন নিশ্চিহৃ

  • আপডেট টাইম : ফেব্রুয়ারি ০৯ ২০২০, ১১:৩৭
  • 89 বার পঠিত
বরিশালের বঙ্গবন্ধু সড়ক এখন নিশ্চিহৃ

শামীম আহমেদ ॥ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বরিশাল – ভোলা সড়ক ঘেষে বেশ কয়েক বছর আগে নির্মান করা হয় আধা কিলোমিটার দুরত্বের একটি সড়ক। স্থানীয় অর্ধশত বাসিন্দা এ সড়ক দিয়েই চলাচল করছে। সড়কটি পাকা হলে খয়রাবাদ ব্রিজ
সংলগ্ন ফুলতলা বাজারের শত শত মানুষের ভোলা রুটে যোগাযোগ অতি সহজতর হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হল এর বিপরীতে হওয়ায় স্থানীয়রা সড়কটির নাম দেন ‘বঙ্গবন্ধু সড়ক’। কিন্তু নির্মানের শুরুতেই বাধা দিচ্ছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। এমনকি ওই সড়কের ইট-বালু তুলে নিয়ে বঙ্গবন্ধু সড়ক এখন নিশ্চিহৃ করে দিয়েছে। নতুন করে পাকা সড়ক করতে চাইলেও বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ফলে সড়কের অভাবে যোগাযোগের ক্ষেত্রে অনেকটা বন্দি হয়ে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

সদর উপজেলার কর্নকাঠীর স্থানীয় বাসিন্দা সাউথ ওয়েব রিয়েল স্টেট লিমিটেড এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো: সফিকুল ইসলাম খান বলেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে যখন ভোলার মহাসড়ক হয় তখন থেকেই এই রাস্তা দিয়ে মানুষ হাটাচলা করত।
আমাদের জমির উপর দিয়ে এটি সরকারী হালোট ছিল। আধা কি:মি এর সড়কটি ববি’র বঙ্গবন্ধু হলের বিপরীতে ভোলা সড়কের পাশ ঘেষে সৃস্টি। এটি ফুলতলা বাজার পর্যন্ত পৌছেছে। কয়েকবছর আগে তিনি নিজ খরচে ৪১ হাজার ইট ফেলে হালোটটি রাস্তায় নতুন রুপ দেন। নামও দেয়া হয় বঙ্গবন্ধু হলের সাথে মিল রেখে বঙ্গবন্ধু সড়ক। কিন্তু পার্শবর্তী বাহার তালুকদার, নাসির সিকদার, হেমায়েত শরিফ নান্না, ইউসুফ আলী খান লাল, জুলফিকার আলী জুলু, কামরুল চৌধুরী ওই রাস্তার ইট তুলে ফেলেন। এখন আবার এটি হালুটে পরিনত হয়েছে। যেকারনে তার হাউজিং এর বাসিন্দারা সহ আশপাশের অর্ধশত পরিবার সড়কের অভাবে চলাচল করতে পারছেন না। বৃস্টি এলেই হাটু পানি জমছে। তিনি সড়কটি করার জন্য বন্দর থানায় অভিযোগও
দিয়েছেন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষরা পাল্টা চাঁদাবাজী মামলা দেয়। ওই মামলায় গত বছরের ১২ ডিসেম্বর তিনি খালাস পেয়েছেন। জনসাধারনের সুবিধার্থে তিনি সড়কটি নতুন করে পাকা করতে চাইলেও বাধা দেয়া হচ্ছে বলে জানান সফিক।

স্থানীয় বাসিন্দা খলিল সরদার বলেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের বিপরীতে ভোলার সড়ক সংলগ্ন একটি সরকারী হালূট রয়েছে। প্রায় ১ কিলেমিটারের এই হালুট কাচা রাস্তায় পরিনত হলেও তা পরিপূর্ন হচ্ছে না। যেকারনে তারা অর্ধশতাধিক পরিবার চলতে পারছেন না। ফুলতলা থেকে বঙ্গবন্ধু হল পর্যন্ত সড়কটি হলে শত শত মানুষ উপকৃত হত। সেখানকার ভবন মালিক মাহিনুর বেগম বলেন, রাস্তা দেখে ৩ তলা ভবন করেছি। এখন রাস্তা উধাও। উপরোন্ত ভবনের কাজ করতে পাড়ছি না।
ভাড়াটিয়াও পাচ্ছি না। এই রাস্তা উচু না করা গেলে বর্ষায় পানি জমবে। হাবিব সিকদার নামে অপর এক ভুক্তোভোগী বলেন, রাস্তাটি কয়েক বছর আগে ইট-বালু দিয়ে করা হয়। এখন একটি পক্ষ বাধা দেয়ায় রাস্তা পাকা করা যাচ্ছে না। যেকারনে
বাড়ি থেকে হাটবাজারে যেতে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

অভিযুক্ত কর্নকাঠীর সাবেক ইউপি সদস্য ও ব্যবসায়ী বাহার তালুকদার বলেন, এখন রাস্তা করতে কেউ বাধা দিবে না। আমিও সরকারী ওই হালটে রাস্তা চাই। রাস্তাটি হলে শত শত মানুষের উপকার হবে। কয়েকবছর আগে ওই জায়গায় স্থানীয় রিপন, কামরুল প্রজেক্ট করেছিলেন। রাস্তার ইট তুলে নিয়ে তারাই অন্য স্থানে ব্যবহার করেছেন। এখন কেউ সড়ক নির্মান করতে চাইলে সহযোগিতা করা হবে।

এ ব্যপারে কর্নকাঠী ইউপি সদস্য জিবুল হক সেন্টু বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশের ভোলা সড়কের দক্ষিনে বহু পূর্বের একটি সরকারী হালোট রয়েছে। স্থানীয়রা কয়েক বছর আগে ইট, বালু ফেলে প্রায় আধা কিলোমিটার সড়ক নির্মান করেন। বঙ্গবন্ধু
বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখে হওয়ায় এর নামও দেন বঙ্গবন্ধু সড়ক। কিন্তু হঠাৎ করে ওই সড়কের ইট তুলে রাস্তাটি বিলীন করে ফেলে একটি মহল। যেকারনে এখনও রাস্তার মতই পরে আছে। তিনি বলেন, এই  রাস্তাটি হলে শত শত মানুষ ফুলতলা বাজার থেকে ভোলার সড়কে অতি সহজে চলাচলের জন্য উপকার হত।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

হালিমা খাতুন স্কুলের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি, বরিশাল







ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
ভোলার দৌলতখানে বিনে পয়সায় রোগী দেখছেন ডাঃ রা১২ বছর ও তদূর্ধ্ব ছাত্র-ছাত্রীদের টিকার ব্যবসোহাগ হত্যা মামলা / দুই জনের ফাঁসি ঃ ৪ জনের যাবট্রাক-কাভার্ড ভ্যান শ্রমিকদের ৪৮ঘণ্টা কর্মবআবারো ভেঙে পরলো ব্রিজ ঃ বরিশালের সাথে ৩ রুটেরলেবুখা‌লি সেতু‌ প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন কর‌ববরিশালে নদীগর্ভে বিলীন হতে চলেছে জৈনপুরী বড় নিজের অফিসে গাড়ি কেনার টাকা স্বাস্থ্যসেবায় দখালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ছে ৬ মাসকুয়াকাটায় সমুদ্রে ১৫ জেলেসহ মাছধরা ট্রলার ডু৭ শতাংশে নামলো করোনায় শনাক্তের হারবরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে আগুন লাগার গুজব ছড়িবঙ্গোপসাগরে সামুদ্রিক সম্পদ জলজ স্তন্যপায়ী লঞ্চঘাট বানান ভুল নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে ক্ষোভনিখোঁজের দু’দিন পর মাঝির মরদেহ উদ্ধার
%d bloggers like this: