পটুয়াখালীর ওসি’র অপসারন দাবীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন

  • আপডেট টাইম : ফেব্রুয়ারি ১০ ২০২০, ২০:৫২
  • 194 বার পঠিত
পটুয়াখালীর ওসি’র অপসারন দাবীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালী সদর থানার ওসি মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের অপসারন ও বিচার দাবীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনের সড়কে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন কালে এ্যাডভোকেট বশিরুল আলমের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ও সদর থানার ওসির অপসারন ও বিচার দাবী করে, বক্তব্য রাখেন সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট গোলাম অহিদ দুলু, সাবেক পিপি এ্যাডভোকেট মোঃ হারুন অর রশিদ, বারের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট ওয়াহিদ সরোয়ার কালাম, এ্যাডভোকেট মাহমুদুল হাসান প্রমুখ। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন
সাবেক জিপি আঃ হক ফরাজী, বারের সাবেক সভাপতি এ্যাড. আবুল কাসেম, জিপি এড. সাহাবুদ্দিন, সাবেক জিপি এড. আলতাফ
হোসেন, বারের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. মোঃ আফজাল হোসেন তালুকদার স্বপন, সাবেক সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট মোঃ হারুন, সাবেক সাধারন সম্পাদক এড. এটিএম মোজাম্মেল হোসেন তপন, সাবেক সাধারন সম্পাদক এড. নুরুজ্জামান মৃধা, সাবেক সাধারন সম্পাদক এড. মুজাহিদুল ইসলাম জাহিদ,এড. মোঃ মহসীন, এড. দেলোয়ার হোসেন, এড. জাহাঙ্গীর হোসেন, এড. আরিফুর রহমান, এড. মাকসুদুর রহমান, এড. শওকত হোসেন, এড. উজ্জ্বল বোস, এড. আবদুল্লা আল নোমান, এ্যাডভোকেট সিকদার বাদশা আলম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ওসি মোস্তাফিজুর রহমান চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীদের পক্ষ অবলম্বন এবং আইনজীবীদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরন করার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তার অপসারন দাবী করেন। ওসিকে অপসারন না করা পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে বলে হুশিয়ারী করেন। পটুয়াখালী জেলা বারের সিনিয়র আইনজীবী এ্যাডভোকেট মোঃ বশিরুল আলম ৭ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার সকালে পিটিআই রোডস্থ বাসার বাউন্ডারি দেয়াল নির্মান কাজ করাচ্ছিল। এ সময় মোতালেব আকন নামক এক ব্যক্তি তার কাছে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। এ টাকা দিতে অস্বীকার করায় প্রানাশের হুমকি দিয়ে কাজ বন্ধ করার কথা বলে চলে যায়। এর কিছুক্ষন পর মোঃ তুহিল (৩২), শামিম (৪০), টিু (৪৫), আঃ
মোতালেব আকন (৫৫)সহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩/৪ জন সন্ত্রাসী লোহার রডসহ দেশী তৈরী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অনধিকার জোরপূর্বক বাড়িতে প্রবেশ করে এ্যাডভোকেট মোঃ বশিরুল আলমের কাছে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। এ চাঁদা টাকা দিতে অস্বীকার করার সাথে সাথে সন্ত্রাসীরা তার উপর হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা
ঘরে থাকা সুকেস এর ড্রয়ারের তালা ভেঙ্গে নগদ ৮০ হাজার টাকা ও স্বনূালংকার নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মামলা করার জন্য এড. বশিরুল আলমের ভাই এড. সিকদার বাদশা আলম, বারের সাবেক ৫জন সেক্রেটারী সহ ৩০/৪০জন আইনজীবী সদর থানায় ওসির কাছে গেলে আইনজীবীদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরন করেন এবং মামলা নেয়া যাবে না বলে বলেন।

রবিবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ কর্মসূচী পালন করার পর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসানের নির্দেশে ওসি আইনজীবীর মামলাটি এজাহারভুক্ত করা হয়েছে বলে আইনজীবী নেতৃবৃন্দ জানান।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

হালিমা খাতুন স্কুলের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি, বরিশাল







ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
জমজম কূপের প্রধান প্রকৌশলী আর নেইপুলিশ হেফাজতে বরিশালে শিক্ষানবিশ আইনজীবীর মজামিন পেলেন কার্টুনিস্ট কিশোররমজা‌নে‌ওে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলাশিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে ৩০ মার্চচলে গেলেন মিডিয়াঙ্গনের পরিচিত মুখ মুরাদ হোসেযুক্তরাষ্ট্রে আবারও চালু হল গ্রিন কার্ডএকসঙ্গে বিষপান করে প্রেমিকের মৃত্যু, প্রেমিকসংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রীবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের প্রতিবেদন মুছতে ব‌রউন্নীত হচ্ছে সরকারি কর্মচারীদের গ্রেড ও বেতননির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি ৬ মেয়হিন্দু সেজে দুই বিয়ে করলো ইউসুফ, অতঃপর…১০ মাসে আত্মহত্যায় মৃত্যু ১১ হাজার, করোনায় ৫ হবরিশালে ইশরাকের সামনে বিএনপির দুই গ্রুপের চে
%d bloggers like this: