বরিশাল সিটি কাউন্সিলর বাদশা’র বিরুদ্ধে প্রবাসীর মামলা

  • আপডেট টাইম : মার্চ ০৯ ২০২০, ১৭:৪৪
  • 95 বার পঠিত
বরিশাল সিটি কাউন্সিলর বাদশা’র বিরুদ্ধে প্রবাসীর মামলা

শামীম আহমেদ ॥ প্রবাসীর কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে সিটি কর্পোরেশনের ৪নং
ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা তৌহিদুল ইসলাম বাদশার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
দায়ের করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে আমেরিকান প্রবাসী ও নগরীর ভাটিখানা এলাকার মৃত আবুল হাসেমের পুত্র মোহাম্মদ মঞ্জুর মোর্শেদ বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের
নির্দেশ দিয়েছেন। মামলা সূত্রে জানা গেছে, বাদি দীর্ঘদিন প্রবাসে বসবাস করছেন। বিভিন্ন সময় তিনি দেশে আশা যাওয়া করতো। ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রীর বরিশালে আগমন উপলক্ষে অনুষ্ঠানের খরচ বাবদ কাউন্সিলর বাদশা বাদির কাছে মোটা অংকের টাকা চাঁদা দাবি করে। বাদি দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় কাউন্সিলর বাদশা ক্ষিপ্ত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় গত বছরের ২১ ফেব্রয়ারি বাদি তার বসত বাড়িতে ঘর নির্মানের জন্য ইট বালু আনলে কাউন্সিলর তার সহযোগিদের নিয়ে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদাদাবিতে নির্মান কাজ বন্ধ করে দেয়।

অভিযোগ অস্বীকার করে কাউন্সিলর তৌহিদুল ইসলাম বাদশা বলেন, একটি মহল আমার উপর ক্ষুব্ধ হয়ে প্রবাসীকে গুটি বানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করিয়েছে। চাঁদা দাবির অভিযোগের কোন
সত্যতা নেই। উলে-খ্য, কাউন্সিলর বাদশা অনুপ্রবেশকারীদের তালিকায় থাকায় আওয়ামীলীগ থেকে তাকে বহিস্কার করা হয়েছে।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর







ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
দৌলতখানে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক আহতআল্লামা শফী মারা গেছেনগলাচিপায় যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুর দাঁত উপড়ে ফেপটুয়াখালীতে পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষার দাবীতে নলছিটিতে ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি গঠন, একাংশেঝালকাঠিতে করোনা উপসর্গে গৃহবধূর মৃত্যুঝালকাঠিতে বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার ভাঙায় ক্ষোভমেয়ে হত্যার বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে বমনপুরার মেঘনায় ১২ কিলোমিটার এলাকায় গাছের খুঁবরিশাল থেকে বেনাপোলগামী বাস মাগুরায় দুর্ঘটনএইচএসসি, জেএসসির সিদ্ধান্ত নিতে ২৪ সেপ্টেম্ববরিশালের উজিরপুরে নিরাপদ পান উৎপাদনের ওপর মাবরিশালে র‍্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমান ফেন্সমনপুরা-চরফ্যাসন আসনের সাবেক সংসদের মৃত্যু বাপটুয়াখালীতে র‌্যাব কর্তৃক ৪,৫৪৫ কেজি পলিথিন
%d bloggers like this: