বঙ্গোপসাগর থেকে চোরাই জাল উদ্ধার, চোরের বিচার দাবী

  • আপডেট টাইম : এপ্রিল ২৩ ২০২০, ১৫:৪৮
  • 736 বার পঠিত
বঙ্গোপসাগর থেকে চোরাই জাল উদ্ধার, চোরের বিচার দাবী
সংবাদটি শেয়ার করুন....

পটুয়াখালী উপকুলীয় প্রতিনিধি॥ পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় বঙ্গোপসাগর থেকে প্রায় লক্ষাধিক
টাকা মুল্যের ১হাজার মিটার চোরাই জাল উদ্ধার করেছে জেলে সংগঠন আশার আলো জেলে সমবায় সমিতির সদস্যরা। চুরি হওয়া জেলেদের অভিযোগের ভিত্তিতে পশ্চিম কুয়াকাটার মাঝি বাড়ি সংলগ্ন সমুদ্র থেকে জেলে ইউনুচ খাঁনের গাঁতা থেকে ২২ এপ্রিল (বুধবার) সন্ধায় এ জাল উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার কৃত চোরাই জাল আশার আলো সমিতির সভাপতি নিজাম শেখের তত্বাবধানে রাখা হয়েছে।

করোনা ভাইরাসের মহামারিতেও থেমে নেই সমুদ্রে জেলেদের জাল চুরি। এঘটনায় সমুদ্রের জেলেদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। জেলেদের সুত্রে জানান, গত ২-৩দিন পুর্বে জেলে বেল্লাল মাঝি,হারুন
মাঝি,খলিল গাজী ও মজিদ পহলানের ২৬ পিচ জাল সমুদ্র থেকে চুরি হয়ে যায়। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অন্য জেলেদের মাধ্যমে তারা জানতে পারে ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৈয়বুর রহমানের ছোট ভাই ইউনুচ খাঁন ঐ চার জেলের জাল চুরি করে নিয়ে চোরাই জাল দিয়ে সমুদ্রে মাছ ধরছে। বুধবার বিকেলে অন্যান্য জেলেদের সহযোগিতায় জেলে সংগঠন আশার আলো সমিতির সদস্যরা ইউনুচ খাঁন সমুদ্রে পেতে রাখা গাঁতা থেকে ১৯পিচ জাল উদ্ধার করে সন্ধা রাতে কুয়াকাটা সৈকতে নিয়ে আসে। যার মুল্য প্রায় লক্ষাধিক টাকা।
জেলে বেল্লাল মাঝি, হারুন মাঝি, খলিল গাজী ও মজিদ পহলান বলেন, করোনা ভাইরাসের সংকটের মধ্যে তাদের জাল সহ আরো একাধিক জাল চুরি হয়ে গেছে। তারা জানান, ইউনুচ খাঁন এর আগেও সমুদ্র থেকে অনেক জেলের জাল চুরি করে নিয়ে যায়। প্রভাবশালী হওয়ায় এ চুরির সঠিক বিচার হয়নি। আশার আলো জেলে সমবায় সমিতির সভাপতি নিজাম শেখ জানান, ভূক্তভোগী জেলেদের অভিযোগের ভিত্তিতে অন্যান্য জেলেদের সহযোগিতায় ইউনুচ খাঁনের গাঁতা থেকে চোরাই ১৯পিচ জাল উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি ৭পিচ জালের কোন হদিস পাওয়া যায়নি। জাল চুরির বিষয়টি পৌর মেয়র আঃ বারেক মোল্লাকে জানানো
হয়েছে। মেয়র এই জাল চোরের কঠিন বিচার করবেন বলে জেলেদের আশ্বস্ত করেছেন। এ বিষয়ে কাউন্সিলর তৈয়বুর রহমান জানান, চোর যেই হোক তার কঠোর বিচার করা হবে।

সমুদ্র আইন অনুযায়ী অভিযুক্ত সাগরে আর কখনো মাছ শিকার করতে পারবেনা। তিনি বলেন, আশার আলোর সমিতির সভাপতিকে তিনি বলেছেন জেলেদের সমন্নয়ে চোরের বিচার করার জন্য। কুয়াকাটা পৌর মেয়র আঃ বারেক মোল্লা বলেন,
করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের মধ্যে জেলেদের জাল চুরির বিষয় ভূক্তভোগি জেলেরা তাকে জানিয়েছে। চুরির অভিযোগে অভিযুক্ত ইউনুচ খাঁনের কঠিন বিচার করা হবে। কেউ যেন আর সাগরে জাল চুরি করতে সাহস না পায়।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ফেসবুক কর্নার

শিরোনাম
কোটার হার পরিবর্তন করতে পারবে সরকার, হাইকোর্ভোলায় কোটাবিরোধীদের পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠাল তির-ধনুক দিয়ে বিবিসি সাংবাদিকের স্ত্রীসহ দুইবদলে যাওয়া পরীমনি১০ জনের দল নিয়ে উরুগুয়েকে হারিয়ে ফাইনালে কলমসংবাদ সম্মেলন ডেকেছে এনটিআরসিএশিক্ষার্থীরা বোধহয় সীমা অতিক্রম করে যাচ্ছেনজেলেদের চাল আত্মসাতের বিচার দাবিতে মানববন্ধবরিশালে পুলিশের বাঁধা ডিঙিয়ে মহাসড়ক অবরোধ শিপুলিশকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশে সতর্কতার অনুরোধঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে ২ বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষশিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মের ছুটি কমল, শনিবাপ্রধানমন্ত্রী আগামীকাল ভারত যাচ্ছেনওয়েস্ট ইন্ডিজকে গুঁড়িয়ে সুপার এইট শুরু ইংল্যদক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে লড়াই করে হারলো যুক্তরা
%d